সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / বগুড়ার খবর / আদমদীঘিতে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু্বরণ করলো পল্লী চিকিৎসক ও ব্যাংক কর্মচারী

আদমদীঘিতে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু্বরণ করলো পল্লী চিকিৎসক ও ব্যাংক কর্মচারী

মো: আবু বকর সিদ্দিক বক্কর,আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার আদমদীঘিতে সোমবার দিবাগত রাতে পল্লী চিকিৎসক আবু বক্কর সিদ্দিক ও ব্যাংক কর্মচারী রাজিব কুন্ডু নামের দুই জনের করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে।
জানা যায়, আদমদীঘি উপজেলার কুন্দগ্রাম ইউনিয়নের কুন্দগ্রাম মন্ডল পাড়ার মৃত ময়েজ মন্ডলের ছেলে পল্লী চিকিৎসক আবু বক্কর সিদ্দিক বেশ কিছু দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশিতে ভুগছিলেন এমন সংবাদ উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানার পর তার নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানোর পরে তার করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজেটিভ আসে। এরপর থেকে আবু বক্কর সিদ্দিক বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিল। সোমবার রাত সাড়ে ৯ টায় সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। ওই রাতেই তার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে এসে দাফন সম্পন্ন করা হয়। অপর দিকে উপজেলার চাঁপাপুর ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর গ্রামের সেবক কুন্ডুর ছেলে রাজিব কুন্ডু বগুড়া যমুনা ব্যাংক বড়গোলা শাখার হিসাব রক্ষক পদে কর্মরতরত অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার জ্বর, সর্দি ও কাশি নিয়ে বাড়িতে ফেরার পর সোমবার রাত সাড়ে ১২ টায় মারা যায়। এ ব্যাপারে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ শহীদুল্লাহ দেওয়ান জানান, মৃত পল্লী চিকিৎসক আবু বক্কর সিদ্দিক আগে থেকেই করোনা পজেটিভ ছিল। কিন্তু ব্যাংক কর্মচারী রাজিব কুন্ডু করোনা পজেটিভ কি না তা নিশ্চিত নয়। তবে তার এবং তার পরিবারের ১০জন সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করে মঙ্গলবার দুপুরে পরীক্ষার জন্য বগুড়া ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে মৃত রাজিব কুন্ডুর মরদেহ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.কে.এম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ, ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাড. সামছুল হক সাম, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মিহির কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক অলোক কুমার মোহন্তের উপস্থিতিতে চাঁপাপুর মহাশশ্মানে তার সৎকার সম্পন্ন করা হয়।

Check Also

বগুড়ায় অশ্লিল ছবি ও ভিডিও ধারণ করে টাকা ও স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নেওয়ায় কলেজ ছাত্র আটক

মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ, বগুড়া প্রতিনিধি : অনলাইন যোগাযোগ মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্কের অভিনয় করে অভিনব কায়দায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 4 =