সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / বগুড়ার খবর / ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে সোনাতলায় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তৎপরতা বৃদ্ধি

ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে সোনাতলায় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তৎপরতা বৃদ্ধি

ইকবাল কবির লেমন: বেজে উঠেছে ইউপি নির্বাচনের দামামা। করোনা মহামারির কারণে নির্দিষ্ট সময়ে অনেক স্থানের ইউপি নির্বাচন স্থগিত হয়ে গেলেও সংক্রমণ কমায় নির্বাচন কমিশন প্রস্তুতি নিয়েছে ইউপি নির্বাচনের। নির্বাচন কমিশনের সরব ঘোষণায় বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দৌড় -ঝাঁপ শুরু হয়েছে। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রার্থীদের ক্ষেত্রে দলীয় মনোনয়ন পদ্ধতি চালু করায় রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বিশেষত, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বাড়িয়ে দিয়েছেন দলীয় কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ। নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিতে গণসংযোগ, দলীয় নেতাদের ছবি সংবলিত পোস্টার, প্যানাফ্লেক্স প্রদর্শনসহ স্থানীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দের সাথেও তারা বাড়িয়েছে। যোগাযোগ। চেস্টা করছেন মনোনয়ন বাগিয়ে নিতে।
৭ টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত ১ লাখ ৬৭ হাজার ৫ শ’ ৪৭ জনসংখ্যার সোনাতলা উপজেলার সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে পুনরায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করার আগ্রহ পোষন করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান, বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুল আলম বুলু। এ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী অন্যান্যরা হলেন-উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নবীন আনোয়ার কমরেড, সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বেলাল, সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মাসুম মোর্শেদ ও সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাবলু আকন্দ।
মধুপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পুনরায় আওয়ামী লীগের দলীউ মনোনয়ন প্রত্যাশা করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান অসীম কুমার জৈন নতুন। মনোনয়ন প্রত্যাশা করেছেন টিজিএস এস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা ছাইফুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম বাদল, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা দবির হোসেন মণ্ডল, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলাউল হক। আওয়ামী লীগের বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের মাঠে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন গত ইউপি নির্বাচনে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুল আলিম।
যমুনা তীরের পাকুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করে গণসংযোগ শুরু করেছেন বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান, বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার রহমান শান্ত। এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন সাদাকাতুল বারী পুটু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ুন কবির গেদা,ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জুলফিকার রহমান টিটো ও যুব মহিলা লীগ নেত্রী লাবনী সরকার। আওয়ামী লীগের বাইরে এ ইউনিয়ন থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান একেএম লতিফুল বারী টিম।
তেকানী চুকাইনগর ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সামছুল হক মণ্ডল। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী অন্যান্যরা হলেন- তেকানী চুকাইনগর ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, বর্তমান সভাপতি মহিদুল ইসলাম খন্দকার, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক নুরে আলম লিখন ও মৎস্যজীবী লীগ নেতা আবু তাহের। দলের বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছন গিয়াস উদ্দীন ও অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক।
জোড়গাছা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মণ্ডল। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন-ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক রফিকুল ইসলাম মতিন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত জামান রুবেল।
এছাড়াও বয়ড়া কারিগরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল ওয়াহেদ এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মোমিন মাস্টারের নামও দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে শোনা যাচ্ছে।

দিগদাইড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলী তৈয়ব শামীম ওই ইউনিয়নে পুনরায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েছেন। এখানে আওয়ামী লীগের অন্যান্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন আওয়ামী লীগ নেতা মেজবাউল হক জুলু, ইইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তৌহিদুল ইসলাম টুলু ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নিরঞ্জন কুমার,সাবেক ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা জালাল উদ্দীন।

বালুয়া ইউপি নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান প্রভাষক রুহুল আমিন পুনরায় আওয়ামী দলীয় মনোনয়ন চাইছেন। আওয়ামী লীগের অন্যান্য দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন- ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ মণ্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক প্রভাষক রুহুল আমিন হিরু, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন জুয়েল, সাবেক ছাত্রনেতা রকিবুজ্জামান আপেল ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান রতন। এ ইউনিয়নে নির্বাচন করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন পুগলিয়া গ্রামের আব্দুল কাইউম।

সোনাতলার সাত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীর তালিকায় এখন পর্যন্ত অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি ও জাতীয় পার্টির কোন প্রার্থীর নাম শোনা যায়নি।

কারা মনোনিত প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন সেটি দেখার অপেক্ষায় সোনাতলা উপজেলার সাত ইউনিয়নবাসী।

Check Also

সারিয়াকান্দিতে বঙ্গবন্ধু কর্ণার উদ্বোধন

সারিয়াকান্দি প্রতিনিধি: বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কর্ণার এর উদ্বোধন করা হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × four =