সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / গাইবান্ধার খবর / গাইবান্ধায় জমিজমা জের ধরে অন্তঃস্বত্ত্বা মহিলার পেটে লাথিঃ ৭ মাসের বাচ্চা নষ্ট

গাইবান্ধায় জমিজমা জের ধরে অন্তঃস্বত্ত্বা মহিলার পেটে লাথিঃ ৭ মাসের বাচ্চা নষ্ট

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার মৌজা মালিবাড়ি গ্রামের ছামছুল হকের ছেলে খয়বর রহমানের সাথে একই এলাকার মজিবর রহমান, ফজলুল হকসহ তাদের লোকজনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে মজিবর রহমান, ফজলুল হকসহ ১০/১২ জন গত ২৬ মার্চ খয়বর রহমানের বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করে হামলা চালিয়ে লুটপাট করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে।
মামলা সুত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার মৌজা মালিবাড়ি গ্রামের নুরুল হকের ছেলে মজিবর রহমান, ফজলুল হক, কচুয়ার খামারের ডিপটি মিয়াসহ ১০/১২ জন ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের নিয়ে গত ২৬ মার্চ সকালে একই এলাকার খয়বর রহমানের বাড়িতে জোরপূর্বক ঢুকে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে খয়বর রহমানের খড়ের গাদা, কলম কাটা আমের গাছের চারা, ছাপরা ঘরসহ বাউন্ডারী বেড়া ভাঙচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে। এতে খয়বর ও তার স্ত্রী লাইজু বেগম বাধা দিলে আসামী মজিবর রহমানের হুকুমে তার অনুসারীরা মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এসময় খয়বরের ৭ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে তলপেটে লাথি মেরে কাপড় টেনে ধরে বিবস্ত্র করে এবং গলায় থাকা স্বর্ণের চেন ছিনিয়ে নেয়। লাইজু চিৎকারে তার বোন নাজমা বেগম এগিয়ে এলে তাকেও হত্যার উদ্দেশ্যে আসামী ফজলুল হক ধারালো ছোরা দিয়ে মাথায় এলোপাথারি কোপায়। এসময় নাজমা বেগম গুরুতর জখম হয়। শুধু তাই নয়, আসামিরা নাজমাকে গলাটিপে ধরে শ্বাস বন্ধ করে। এদিকে খয়বরের স্ত্রীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে দ্রুত গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে সে মরা সন্তান প্রসব করে।
এব্যাপারে গাইবান্ধা সদর থানায় গত ১ মার্চ রোববার খয়বর রহমান বাদি হয়ে একটি মামলা (নং ০২) দায়ের করে। মামলা করার পর থেকে আসামিরা আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে এবং বাদিকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য হত্যাসহ নানা ধরণের ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে। ফলে বাদি পরিবার বাড়ি ঘর ছেড়ে পালিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

Check Also

সাঘাটায় জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় বাবা-মেয়ে আহত

জয়নুল আবেদীন,স্টাফ রিপোর্টারঃ জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় বাবা জাহিদুল ইসলাম (৫৫) ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 4 =