সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / ঢাকা টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মুশফিকের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরির পর বাংলাদেশের ইনিংস ঘোষণা

ঢাকা টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মুশফিকের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরির পর বাংলাদেশের ইনিংস ঘোষণা

ইমরান এইচ মণ্ডল, বাঙালি বার্তাঃ ঢাকা টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। সোমবার তৃতীয় দিনে ৬ উইকেটে ৫৬০ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। জবাবে তৃতীয় দিন শেষে জিম্বাবুয়ে ২ উইকেটে ৯ রান সংগ্রহ করেছে। ২টি উইকেটই নিয়েছেন নাঈম হাসান।

মুশফিকুর রহিম ২০৩ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। এর আগে জিম্বাবুয়ে তাদের প্রথম ইনিংসে ২৬৫ রানে অলআউট হয়। জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংসের চেয়ে ২৯৫ রানে এগিয়ে রয়েছে স্বাগতিকরা।

এদিকে দেশের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি করার গৌরব অর্জন করলেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। ৩১৮ বলে খেলা তার ২০৩ রানের ইনিংসটি ছিল ২৮টি চারে সাজানো।

এর আগে ২০১৩ সালে গলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০০ রান করে দেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করেন মুশফিক। ২০১৮ সালে ঢাকায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২১৯ করার পর ২০২০ সালে এসেও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একই ভেন্যুতে ২০৩ রান করলেন তিনি।

মুশফিক ছাড়া বাংলাদেশের হয়ে টেস্টে আর দুজন ব্যাটসম্যান ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন। তারা হলেন তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। তারা দুজনেই একটি করে ডাবল সেঞ্চুরির মালিক।

এর আগে সকালে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ থেকে মাত্র ২৫ রান পিছিয়ে থেকে মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। মুমিনুল ৭৯ রান ও মুশফিক ৩২ রানে অপরাজিত থেকে দিনের খেলা শুরু করেন।

মুমিনুল নিজের ক্যারিয়ারের নবম এবং অধিনায়ক হিসেবে প্রথম টেস্ট শতক তুলে নেন। ১৩২ রানে ফিরে যান তিনি। এছাড়া মাঝে ফিফটি তুলে নেন লিটন দাস (৫৩)।

পাশাপাশি আগের দিন নাজমুল হোসেন শান্ত ৭১, তামিম ইকবাল ৪১ রান করেন।

এর আগে রবিবার সকালে আগের দিনের ৬ উইকেটে ২২৮ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামে জিম্বাবুয়ে। শেষ পর্যন্ত ১০৬ দশমিক ৩ ওভারে ২৬৫ রানে থামে সফরকারী দলের প্রথম ইনিংস। শনিবার টাইগারদের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় জিম্বাবুয়ে।

প্রথম দিন জিম্বাবুয়ের পক্ষে চমৎকার এক শতক হাঁকিয়েছেন সফরকারী দলের অধিনায়ক ক্রেইগ এরভিন। তিনি ২২৭ বলে ১৩ চারের সাহায্যে খেলেন ১০৭ রানের এক দৃষ্টিনন্দন ইনিংস।

স্বাগতিকদের হয়ে নাঈম হাসান ৭০ রানে ৪টি, আবু জায়েদ রাহি ৭১ রানে ৪টি এবং তাইজুল ৯০ রানের বিনিময়ে নেন ২টি উইকেট।

Check Also

৩০ বছর পর ইপিএল চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল

ইমরান এইচ মণ্ডল, বাঙালি বার্তাঃ করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের জন্য সমর্থকদের ঘরে থাকার অনুরোধ করেছিল লিভারপুল। কিন্তু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven − five =