সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / বগুড়ার খবর / ধুনটে ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার

ধুনটে ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার

মো. আব্দুল ওয়াদুদ, বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার ধুনটে আলোচিত নানা-নাতনি ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি বকুল মন্ডল (২৩) কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। ধুনট থানার এসআই শাহীনুর রহমান সঙ্গিয় ফোর্স নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে বথুয়াবাড়ী বাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করে। মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ছোট চিকাশি গ্রামের মোহনপুর এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য চপল মাহমুদের মেয়ে সম্পা খাতুন (১২) একই উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের কৈয়াগাড়ি গ্রামে নানা রশিদ মন্ডলের বাড়িতে থেকে স্থানীয় বালিকা বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে লেখাপড়া করতো। তার নানার বাড়ির পাশে অফের আলীর ছেলে বকুল মন্ডল (২৩) বিয়ের প্রলোভনে ওই স্কুলছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এ অবস্থায় ২০১৮ সালের ১৫ এপ্রিল বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মেয়েটি স্কুল থেকে নানার বাড়িতে ফিরে ঘরের ভেতর শরীরের পোশাক পরিবর্তন করছিল। এ সময় বকুল মন্ডল ঘরে ঢুকে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের সময় হাতেনাতে ধরে ফেলে নানা রশিদ মন্ডল। ঘটনাটি প্রকাশ করার ভয় দেখিয়ে একই সময় নানা রশিদ মন্ডলও নাতনিকে ধর্ষণ করে। এ অবস্থায় স্কুলছাত্রীর শারীরিক পরিবর্তন দেখা দিলে তার মা-বাবা চিকিৎসকের নিকট নিয়ে এলে মেয়ের অন্তঃসত্তা হওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারে। পরে মেয়ের মুখে বিবরণ শুনে তার বাবা চপল মাহমুদ বাদী হয়ে ২০১৮ সালের ৩ অক্টোবর বগুড়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় মেয়েটির নানা রশিদ মন্ডল ও প্রেমিক বকুল মন্ডলকে আসামী করা হয়। বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ২২ অক্টোবর ২০১৮ ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জকে আদেশ দেন। মামলার পর থেকে রশিদ মন্ডল (৬২)ও বকুল মন্ডল (২৩) পলাতক ছিল। মামলা তদন্ত চলাকীন সময়ে ওই স্কুলছাত্রী ১ জানুয়ারী ২০১৯ একটি পুত্র সন্তান প্রসব করে। সন্তানের নাম রাখা হয় আব্দুল বারিক। ওই মামলার আসামি স্কুলছাত্রীর নানা রশিদ মন্ডলকে ২৫ জানুয়ারি শুক্রবার সকাল ৮টায় যমুনা নদীর চর এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্কুলছাত্রীর নানা রশিদ মন্ডল উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের কৈয়াগাড়ি গ্রামের মুনছের আলীর ছেলে। ১১ জুলাই ২০১৯ বৃহস্পতিবার দুপুরে বথুয়াবাড়ী বাজার এলাকা থেকে অপর আসামি বকুল মন্ডলকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। বগুড়া জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান জানান, আলোচিত ধর্ষণ মামলার আসামি রশিদ মন্ডল ও বকুল মন্ডল পালাতক ছিলো। রশিদ মন্ডলকে জানুয়ারী মাসে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর ৫ মাস পর ১১ জুলাই ২০১৯ বৃহস্পতিবার অপর আসামি বকুল মন্ডলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন জানান, ধর্ষণ মামলার অপর পালাতক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

Check Also

রোটারী ক্লাব অব বগুড়ার উদ্যোগে বগুড়ায় বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালিত

মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ,বগুড়া প্রতিনিধিঃ মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় যথাযত স্বাস্থ্যবিধি মেনে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 1 =