সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / জাতীয় / প্রস্তাবিত বাজেটকে ‘গরিব মারার বাজেট’ আখ্যা দিয়েছে বিভিন্ন দল ও সংগঠন

প্রস্তাবিত বাজেটকে ‘গরিব মারার বাজেট’ আখ্যা দিয়েছে বিভিন্ন দল ও সংগঠন

প্রস্তাবিত বাজেটকে ‘গরিব মারার বাজেট’ আখ্যা দিয়ে সরকারের আয়-ব্যয়ের এই রূপরেখাকে প্রত্যাখ্যান করেছে বিভিন্ন দল ও সংগঠন। এসব সংগঠনের নেতারা বলেছেন, করোনা মহামারিকালে জীবন ও জীবিকা রক্ষার কোনো সুনির্দিষ্ট দিকনির্দেশনা এই বাজেটে নেই।

শুক্রবার বিভিন্ন দল ও সংগঠন পৃথক বিবৃতি ও সভা-সমাবেশে এসব কথা বলেছে। একই সঙ্গে জনবান্ধব বাজেট প্রণয়নের দাবিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহ্বান জানান নেতারা।

বাম ঐক্যফ্রন্টের বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা মহামারিকালের প্রস্তাবিত এই বাজেট শোষণমূলক, লুণ্ঠনমূলক ও দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যবস্থা টিকিয়ে রাখার দলিল। এটা শিক্ষাবান্ধব নয়, বরং দুর্বৃত্ত ব্যবসায়ীদের খুশি করার বাজেট। শ্রমিক, কৃষক, স্বল্পআয়ের মানুষসহ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প উদ্যোক্তারা এই বাজেটে উপেক্ষিত। শ্রমিকদের পক্ষে কোনো কথা নেই। এই বাজেটে দুর্নীতি বন্ধ করে করোনা দুর্যোগ মোকাবিলার দিকনির্দেশনা নেই।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন বাম ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয়ক ও গণমুক্তি ইউনিয়নের আহ্বায়ক নাসির উদ্দীন আহমেদ নাসু, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) আহ্বায়ক সন্তোষ গুপ্ত, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার মুর্শেদ এবং কমিউনিস্ট ইউনিয়নের আহ্বায়ক ইমাম গাজ্জালী।

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক মুবিনুল হায়দার চৌধুরী পৃথক বিবৃতিতে বলেন, এই বাজেট ধনী তোষণ ও কর বৃদ্ধির বাজেট। জীবন ও জীবিকা রক্ষার বাজেট বলে যতই ঢোল পেটানো হোক, করোনা মহামারিতে মানুষের জীবন রক্ষার জন্য স্বাস্থ্য খাতকে ঢেলে সাজানোর কোনো পরিকল্পনা ও সে অনুযায়ী সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার প্রদানের বরাদ্দ এই বাজেটে নেই।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গার্মেন্ট শ্রমিক ফ্রন্টের বিক্ষোভ সমাবেশে নেতারা গার্মেন্টসহ সব শ্রমিকের জন্য রেশন, বিনামূল্যে চিকিৎসা ও স্বল্পমূল্যে আবাসন নিশ্চিত করতে বাজেটে সুনির্দিষ্ট বরাদ্দের দাবি জানান। গার্মেন্ট শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি আহসান হাবিব বুলবুলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, গার্মেন্ট শ্রমিক ফ্রন্টের সহসভাপতি খালেকুজ্জামান লিপন, সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, রুহুল আমিন সোহাগ, মোহাম্মদ সোহেল, আনোয়ার খান, নুর হোসেন সর্দার, কামাল হোসেন প্রমুখ।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে টেপটাইল-গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশন ও মটরযান মেকানিক ফেডারেশনের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে নেতারা বলেন, এবারের বাজেটেও আগের মতোই সব বরাদ্দ ধনী ও মালিক শ্রেণির জন্য। শ্রমিক খাতে এবারও কোনো বরাদ্দ রাখা হয়নি। উৎপাদন ও জাতীয় আয়ের ক্ষেত্রে শ্রমিকই প্রধান শক্তি। তাদের বাদ দিয়ে কোনো পূর্ণাঙ্গ বাজেট হতে পারে না।

টেপটাইল-গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান ইসমাইলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন মটরযান মেকানিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, তেজগাঁও মটর মেকানিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. জহির, শ্রমিক নেতা আবদুর রশিদ, মো. মাসুদ, আবুল হোসেন, শহিদুল ইসলাম সবুজ, শামীম ইমাম, প্রকাশ দত্ত প্রমুখ।

Check Also

৬ দফার মাধ্যমেই বাঙালির স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ঐতিহাসিক ৬ দফাকে ‘বাঙালির মুক্তির সনদ’ আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এই ৬ দফার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × one =