সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / বগুড়ার খবর / বগুড়ার কাহালুতে পানি নিস্কাশনের ড্রেন ও ব্রীজ বন্ধ করায় চরম দূর্ভোগে জনগন

বগুড়ার কাহালুতে পানি নিস্কাশনের ড্রেন ও ব্রীজ বন্ধ করায় চরম দূর্ভোগে জনগন

মো. আব্দুল ওয়াদুদ, বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার কাহালু-মালঞ্চা রাস্তার পৌর এলাকার গোয়াল সানরাইজ মডেল স্কুলের সামনে ও কাহালু-পাইকপাড়া পাকা রাস্তার লক্ষিপুর এলাকায় রাস্তার ধারে বৃষ্টির পানি নিস্কাশনের ড্রেন,কালভার্ট ও ব্রীজ বন্ধ করে পুকুর খনন করাসহ অপরিকল্পিতভাবে ঘর-বাড়ী স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে। এর ফলে উক্ত রাস্তা দু’টির বে-হাল দশা বিরাজ করছে। প্রতিদিন গুরুত্বপূর্ণ উক্ত দুটি রাস্তা দিয়ে ট্রাক-বাসসহ ভারী যানবাহন ও ছোট বড় প্রায় ২ সহস্রাধিক যানবাহনে মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলা-চল করছেন। কিন্তু সংস্কারে কোন পদক্ষেপ নেই। জানা গেছে, কাহালূ উপজেলার মালঞ্চা,জামগ্রাম ও দুর্গাপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদরাসাগামী শিক্ষার্থী, চাকুরীজীবি, ব্যবসায়ী পেশাজীবি সহ প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ বিভিন্ন যানবাহনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে উপজেলা সদরে আসা-যাওয়া করেন। উক্ত রাস্তা কাহালু পৌর এলাকার গোয়াল পুকুর সানরাইজ মডেল স্কুলের সামনে পানি নিস্কাশনের ড্রেন না থাকায় এবং অপরিকল্পিত ভাবে বাড়ী-ঘরসহ স্থাপনা নির্মাণ করায় রাস্তায় বর্ষার পানি জমে রাস্তার বে-হালদশা দেখার যেন কেউ নেই।রাস্তাটি কাদা-পানিতে একাকার। কোন মানুষ হেটে ঐ রাস্তা দিয়ে চলা-চল করতে পারেনা। অনেক সময় কাদাতে যানবাহন আটকে পড়লে গাড়ীর যাত্রীরা কাদা-পানিতে নেমে ধাক্কা দিয়ে যানবান তুলতে হয়। এছাড়া কাহালু-আখুঞ্জা রাস্তার পৌর এলাকার লক্ষিপুর রাস্তার ড্রেন ও কমপক্ষে ছোট-বড় ৪/৫ টি ব্রীজ-কালভার্ট বন্ধ করায় রাস্তার বেশ কয়েক স্থানে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই যানবাহন তো দুরের কথা মানুষও চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। উক্ত রাস্তা দিয়ে কাহালু সদর ইউনিয়ন পরিষদে প্রতিদিন শত শত ইউনিয়নবাসীসহ কমপক্ষে ৭/৮ টি গ্রামের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার মানুষ রিক্্রা-ভ্যান, সিএনজি চালিত অটোরিকশা, মটর সাইকেলে আসা-যাওয়া করেন। রাস্তাটি নির্মাণের কিছু দিন পর দুইবার সংস্কার করা হলেও বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানি নিস্কাশনের ড্রেন ও ব্রীজ কালভার্ট বন্ধ করায় রাস্তার উপর পানি জমে রাস্তার ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় কাদা-পানি জমে একাকার হয়ে পড়ে। কাদা পানির কারনে সহজে ঐ রাস্তদিয়ে রিক্সা-ভ্যান বা যানবাহন চলাচল করতে চায়না। কাদা পানির করণে বিশেষ করে মটর সাইকেল আরোহীরা পড়ের চরম বিড়ম্বনায়। বিষয়টি স্থানীয় জন-প্রতিনিধি ও প্রশাসনের বার বার দৃষ্টি আকর্ষন করা হলেও তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করায় এলাকাবাসীর চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

Check Also

সোনাতলা থিয়েটারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নবীর মা’র মৃত্যুতে শোক

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি: সোনাতলা থিয়েটারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী নুরুন্নবীর মা জোবেদা বেগমের মৃত্যুতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

nineteen + one =