সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / ভিনিসিয়াস-মারিয়ানোর নৈপুণ্যে বার্সেলোনাকে হারিয়ে শীর্ষে রিয়াল

ভিনিসিয়াস-মারিয়ানোর নৈপুণ্যে বার্সেলোনাকে হারিয়ে শীর্ষে রিয়াল

ইমরান এইচ মণ্ডল, বাঙালি বার্তাঃ স্প্যানিশ লা লিগার মহাগুরুত্বপূর্ণ এল ক্লাসিকোতে বার্সালোনাকে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে বার্সালোনাকে ২-০ গোলে হারায় রিয়াল। ম্যাচে জয়সূচক দুটি গোল করেন ভিনিসিয়াস ও মারিয়ানো।

ম্যাচের প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত দুই দলই আক্রমনাত্মক ফুটবল খেলতে থাকেন। ম্যাচে দুই দলই সহজ কিছু সুযোগ মিস করেন। আর শেষ পর্যন্ত শেষ হাসিটা হাসে রিয়ালই।

ম্যাচের ১৩ ও ১৫ মিনিটে দুটো সুযোগ আসে রিয়ালের সামনে। তবে প্রথমবার বেনজামা নিজের নিয়ন্ত্রন রেখে বলে নজর দিতে পারেনি। আর দ্বিতীয়বার টনি ক্রুস মারেন বারের উপর দিয়ে।

মিনিট দুয়েক পরই বিপজ্জনক ভাবে রিয়ালের ডিবক্সে ঢুকে পড়েছিলেন গ্রীজম্যান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সফল হতে পারেনি সাবেক অ্যাতলেটিকো তারকা।

ম্যাচে রেফারিও বেশ শক্ত হাতেই নিয়ন্ত্রন করেন। ১৮ মিনিটের মধ্যেই তিনবার হলুদ কার্ড দেখান তিনি যার মধ্যে রিয়ালের দুজন এবং বার্সার ছিল একজন।

২১ মিনিটের মাথায় দুর্দান্ত এক কাউন্টার অ্যাটাকে উঠে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু বার্সার ডিবক্সে গিয়ে আক্রমনের দিক হারায় তারা। পাল্টা আক্রমনে দুর্দান্ত সুযোগ আসে গ্রীজম্যানের সামনে। তবে এই তারকা বল মারেন বারের উপর দিয়ে।

ম্যাচের ২৭ মিনিটে আরও একবার হতাশার নাম বেনজামা। ভালভার্দের দারুণ এক ক্রসে সময়মত সঠিক জায়গায় যেতে পারেননি তিনি।

২৯ মিনিটে আরও একবার দুর্দান্ত সুযোগ হারায় রিয়াল। দারুণ একটা আক্রমন থেকে ভিনিসিয়াস বল দেন বেনজামাকে। কিন্তু বেনজামা নিজে শট না নিয়ে তা দেন টনি ক্রুসকে। টনি ক্রুসের শট যায় বারের উপর দিয়ে।

পাল্টা আক্রমনে গ্রীজম্যান, মেসি ও ভিদাল মিলে দারুণ সম্ভাবনা তৈরি করেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত মেসির শট সরাসরি চলে যায় কর্তোয়ার কাছে।

৩৪ মিনিটে দুর্দান্ত এক পাল্টা আক্রমন থেকে রিয়ালকে বাঁচান কর্তোয়া। ওয়ান টু ওয়ানে আর্থারের শট কর্নারের বিনিময়ে বাঁচান রিয়াল গোলকিপার।

৩৮ মিনিটে আবারও রিয়ালের ত্রাতা কর্তোয়া। এবার লিওনেল মেসির প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেন রিয়াল গোলকিপার। ৪০ মিনিটের সময় আরও একবার নিশ্চিত গোলের সুযোগ হারায় বার্সা। পাল্টা আক্রমনে ভিনিসিয়াসও বার্সার ডিবক্সে ঢুকে ভুল পাস দিলে নষ্ট হয় তাদের আক্রমনও।

আক্রমন আর পাল্টা আক্রমনে চলমান ক্লাসিকোর প্রথমার্ধে কোন দলই গোল করতে না পারলে প্রথমার্ধ শেষ হয় ০-০ সমতায়।

বিরতির পর ম্যাচের ৫৪ মিনিটে অবিশ্বাস্য মিস করেন বেনজামা। সেখানে বেনজামা মিস করলেও বল পেয়ে যায় রিয়াল তারকারা। সেই আক্রমন থেকে ইসকোর নেয়া দুর্দান্ত শট উড়ে গিয়ে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন স্টেগান।

ম্যাচের ৬৫ মিনিটে অবিশ্বাস্য এক কান্ড ঘটে ম্যাচে। নিশ্চিত গোল হতে হতে বঞ্চিত হয় রিয়াল। একেবারে দাগের উপর থেকে বার্সাকে বাঁচান পিকে।

মিনিট খানেক পর আবারও রিয়ালের হতাশার নাম হয়ে আসেন বেনজামা। ভলিটা কেবল পোস্টে রাখতে পারলেই গোলের সম্ভাবনা ছিল- সেটা তিনি মারেন পোস্টের উপর দিয়ে।

ম্যাচের ৭১ মিনিটে অবশেষে কাঙ্খিত সাফল্য পায় রিয়াল মাদ্রিদ। বহু সুযোগ মিস করা রিয়াল মাদ্রিদ ম্যাচের ৭১ মিনিটে টনি ক্রুসের পাস থেকে ভিনিসিয়াস জুনিয়রের গোলে এগিয়ে যায়।

ম্যাচের ৮৩ মিনিটে আরও একবার গোলের খুব কাছে পৌছে গিয়েছিল ভিনিসিয়াস জুনিয়র। তবে শেষ পর্যন্ত স্টেগানকে পরাস্ত করতে পারেনি এই ব্রাজিলিয়ান তারকা।

ম্যাচের ৮৫ মিনিটে বল হারিয়ে মেজাজ হারিয়ে ক্যাসমিরোকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন লিওনেল মেসি।

ম্যাচের শেষ মুহূর্তে খেলায় উত্তেজনা বিরাজ করে। দুই দলই শারীরিক শক্তি প্রদর্শন করে খেলতে থাকে। বার্সালোনা মরিয়া হয়ে উঠে গোল শোধের জন্য। এমনকি স্টেগানকেও দেখা যায় মাঠের অর্ধেক উঠে আসতে। রিয়াল মাদ্রিদ মরিয়া তখন সময় শেষ করতে।

এরমধ্যেই অতিরিক্ত সময় দেন ৩ মিনিট। সেখানে এক মিনিট চলে যাওয়ার পর মাঠে নামেন মারিয়ানো। আর মাঠে নেমেই একক নৈপুন্যে বার্সার জালে বল পাঠান মারিয়ানো। তাতেই ২-০ গোলের জয় পায় রিয়াল মাদ্রিদ। আর এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠে আসে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর দলটি।

Check Also

তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী ফখফখের পদত্যাগ

ইমরান এইচ মণ্ডল,বাঙালি বার্তাঃ তিউনিশিয়ার সংসদে সবচেয়ে বেশি আসনের অধিকারী আন-নাহদা পার্টি সমর্থন প্রত্যাহারের পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × five =