সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / সোনাতলায় বীনা-১৭ ধান চাষ করে কৃষকের মাথায় হাত

সোনাতলায় বীনা-১৭ ধান চাষ করে কৃষকের মাথায় হাত

আব্দুর রাজ্জাক, স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলায় বীনা-১৭ ধানের চাষ করে ধানখেতে সবেমাত্র ২৫ দিন বয়স তাতেই শীষ বের হয়েছে। এই দৃশ্য বগুড়া জেলার সোনাতলা উপজেলার পৌর এলাকার কাবিলপুর গ্রামে নুরজ্জামান কৃষকের কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ, দিশেহারা কৃষক। কৃষক নুরুজ্জামান বলেন, স্থানীয় সোনাতলা বাজারে এক বীজ ডিলার থেকে বীনা-১৭ ধান ১২০দিনে ধানের বাম্পার ফলন বীজ ক্রয় করি। এ বীজে বিঘা প্রতি ২৫ থেকে ৩০ মন ধান পাওয়া যাবে বলে ডিলারের পরামর্শ অনুযায়ী বীজ ক্রয় করি। কিন্তু বীজ বপনের ২৩ দিনের মাথায় বীজ উত্তোলন করে চারা লাগাই। চারা লাগানোর ২৫দিনের মাথায় ধানের শীষ বের হওয়ার ৪ বিঘা জমির ধানখেত নষ্ট হওয়ার পথে।
উপজেলা কৃষি অফিসার মাসুদ আহম্মেদ বলেন, ‘এবারের আমন মৌসুমে সোনাতলা উপজেলায় কৃষকরা অনেকেই জমিতে বিভিন্ন জাতের ধানের আবাদ করেছে। এর মধ্যে অনেকে নতুন বিনা-১৭ জাতের ধান ফলন ভালো হওয়ায় এবং কিছুটা তাড়াতাড়ি ফলন পাওয়ায় এখানকার কৃষকেরা এই ধানের আবাদ করতে আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। মূলত বীনা-১৭ জাতের ধান সব মৌসুমের জন্য উপযুক্ত সময়।
এমনকি তিন মৌসুমেই এই জাতের ধানের চাষ করা যায়। নতুন ধানের আবাদ করতে গেলে কৃষি অফিসের পরামর্শ করে আবাদ করলে অনেক লাভবান হবে কৃষক। ক্ষতি হওয়ার পর আসলে এ ক্ষেত্রে আমাদের করার কিছু নেই। সব বুঝে এ ধানের আবাদ করলে কৃষকের ক্ষতি হবে না বরং লাভবান হবে।’
এ বিষয়ে সোনাতলা বাজার বীজ ডিলার মালিক আব্দুর রশিদ বলেন, ‘আমি বিএডিসির সরকারি প্রণোদনার ধানের বীজ কৃষকের কাছ থেকে ক্রয় করি। এবং আমার বিএডিসির বীজ ডিলারের লাইসেন্স আছে লাইসেন্স নং ৩০১, ভালো ফলনের আশায় কৃষককে এ বীজ দিয়েছি স্বল্প সময়ে এ ফসল ঘরে উঠবে। কেন যে এটা হলো তা বিএডিসির লোকেই ভালো জানে।’

Check Also

পঞ্চগড়ের বোদায় ৫০০ প্রান্তজনীয় নারীকে খাদ্য সহায়তা প্রদান

খবর বিজ্ঞপ্তিরঃ রবিবার দুপুর ২ টায় পঞ্চগড়ের বোদায় ইউসিবিএল ও বিসেফ ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় উমেন এন্ডিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 3 =