সংবাদ শিরোনামঃ
প্রচ্ছদ / বগুড়ার খবর / সোনাতলায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীর হাত ভেঙ্গে দিল স্বামী

সোনাতলায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীর হাত ভেঙ্গে দিল স্বামী

আব্দুর রাজ্জাক, স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলায় যৌতুক না পেয়ে  স্ত্রী রুমা বেগমকে বেধড়ক মারপিট করে হাত ভেঙ্গে নিজ ঘরে আটক করে রাখে শরিফুল ইসলাম নামে এক পাষন্ড স্বামী । এ ব্যাপারে রুমার মা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। থানা পুলিশ আহত অবস্থায় মেয়েটিকে তার স্বামীর বাড়ি হতে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দিয়েছে।
থানায় অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের হাঁসরাজ গ্রামের মৃত ওয়ারেছ মন্ডলের মেয়ে মোছাঃ রুমা আকতারের সাথে একই উপজেলার পাকুল্লা ইউনিয়নের চারালকান্দি গ্রামের মোঃ জয়নাল আকন্দের ছেলে মোঃ শরিফুল ইসলামের রেজিষ্ট্রিমূলে গত তিন বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর হতেই যৌতুক লোভী স্বামী শ্বশুর বাড়িতে ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। বাবার বাড়ি হতে যৌতুকের টাকা না আনার কারনে অকারনে প্রায়ই পিতা হারা মেয়েটিকে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করতে থাকে। এ নিয়ে কয়েক দফায় দুই পরিবারের আত্মীয়স্বজন সহ গ্রামের মাতা মুরব্বীদের নিয়ে শালিসি বৈঠক হয়। কিছুদিন ভালোভাবে সংসার করার পর আবারো যৌতুকের দাবীতে তাকে মারপিট সহ বিভিন্ন রকমের জ্বালা-যন্ত্রনা করতে থাকলে মেয়েটি তার বাবার বাড়িতে চলে আসে। বাবার বাড়িতে প্রায় আড়াই মাস থাকার পর গত ১৯ জুন শুক্রবার শরিফুল আবারো তার আত্মীয়স্বজন ও গ্রামের মাথামুরব্বীদের সঙ্গে নিয়ে স্ত্রীকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার লক্ষে শ্বশুর বাড়িতে আসে। সেখানে দুই পরিবারের লোকজনের মধ্যে শালিসি বৈঠক হয়। শালিসি বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আর কোনোদিন যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে মারপিট সহ কোনো প্রকার জ্বালা-যন্ত্রনা করবে না। কিন্তু পরধন লোভী শরিফুল স্ত্রী রোমাকে বাড়িকে নিয়ে গিয়ে ওইদিন রাত্রি ১০টায় আবারো একই দাবীতে বেদম মারপিট করে তার ডান হাত ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে আটকে রাখে। সংবাদ পেয়ে মেয়েটির মা তার পরিবারের লোকজন নিয়ে জামাইয়ের বাড়িতে ছুটে যায়। তাদেরকে দেখামাত্র শরিফুল ও তার পরিবারের লোকজন তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি সহ মারপিট করার উপক্রম হয়। ঘরের মধ্যে আটক থাকা মেয়েটি মারপিটের জ্বালা-যন্ত্রনায় চিৎকারের আওয়াজ শুনে মা সেরেনা বেগম তার মেয়েকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়ার অনুরোধ করে। অনেক অনুরোধ-বিনুরোধ করে ব্যর্থ হয়ে ফিরে আসে। পরে মেয়েটির মা কোনো উপায়ান্তর না পেয়ে থানায় অভিযোগ করে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে থানা অফিসার ইনচার্জ মাসউদ চৌধুরী জানান, ‘এসআই সোহেলের নেতৃত্বে পাঠানো ফোর্সের মাধ্যমে চারালকান্দি স্বামীর বাড়ি হতে মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। সুস্থ হলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Check Also

সোনাতলায় ডেকোরেটর শ্রমিক ইউনিয়নের অফিস উদ্বোধন

আব্দুর রাজ্জাক,স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা ডেকোরেটর শ্রমিক ইউনিয়নের অফিস উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার সকালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − twelve =